চৌধুরানীর দুটি কবিতা

ভিত্তিহীন

কেন শুধুই মনে পড়ে—
কোন সে অজানা উদ্দেশ্যে নিশ্চুপ অপেক্ষমান
সারা রাত অতন্দ্র প্রহরীর মতো রক্তক্ষয় জেগে রয়।
নেই উচ্ছ্বাস, নেই কোলাহল কেবলই ভার বয়ে চলা
বিশ্বাস অবিশ্বাসে—মন দ্বিধান্বিত নয়
কতটুকু চাই—পাই বা কতখানি,
অসীম দূরত্ব অতিক্রম করে খুঁজে বেড়ায়
স্বপ্নের পসরা সাজিয়ে নির্মল চিত্তে—
কী হবে এত স্মৃতির?
সময়ের গর্ভে একদিন—সব বিলীন হয়ে যাবে
নতুন ধারায় শুরু হবে পথ চলা—
তোমার
আমার…

****

ভালোবাসা

ভালোবাসা কাউকে এতোটা নিঃসঙ্গ করতে পারে?
তোমার সাথে সখ্যতা না হলে বোধগম্য হতো না।
খেলায় খেলায় স্মৃতির অতলে তলিয়ে গেছি।
মন—বিবর্ণ, কোলাহল—অসহনীয়।
নিজেকে দেখে বিস্ময়ে হতবাক হই
তুমিহীনা আমি—আমি নই।

কল্পনায় করি বাস—
অতীত স্মৃতি খুঁড়ে খুঁড়ে সুখ কুড়িয়ে নেই,
এ যে আরও বেশি যাতনাময়।
ছলে-বলে, নতুন কৌশলে নিজেকে বোঝাই,
ভালোবাসা তো ভালোবাসাই—
কাছে পাওয়া না পাওয়ায় কী আসে যায়!

এতোটা জীবন কেটে গেল কোন খেয়ালে
জীবনের প্রকৃত রূপ আজ দৃশ্যমান
হৃদ-গহীনে—তোমাকেই খুঁজি

হাত বাড়িয়ে ছুঁই না—মন দিয়ে ছুঁই
আঁখি মেলে পাই না—তাই ধ্যানমগ্ন রই
ভালোবাসা বুঝি তারেই কয়…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *